সর্বশেষ

23.4 C
Rajshahi
Saturday, December 4, 2021

Saturday, December 4, 2021
🥽VR Game🎮🎯 নতুন বছরে থিম ওমর প্লাজায় যুক্ত হলো ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (VR) গেম .ভিডিও দেখুন.। এ বছরই আমরা শুরু করেছি আমরা শুরু করেছি টপ লাইফ স্টাইল (www.toplifestylebd.com) এর নতুন একটি ই-কর্মাস সাইট যা আপনার কেনাকাটা কে হাতের মুঠোয় এনে দিবে।

আমার প্রথম কক্সবাজার সমুদ্র ভ্রমনের কথা

রাজশাহীর থিম ওমর প্লাজায় বিনিয়োগের সুবর্ণ সুযোগ ঈদুল ফিতর উপলক্ষে অল্প কিছু সংখ্যক ফ্ল্যাট ও দোকান বিক্রয় চলছে। এককালীন মূল্য পরিশোধে বিশেষ মূল্য ছাড় !! যোগাগোঃ 01615-33 22 29,01615-33 22 51. Theme Omor Plazaকম্পিউটার,কম্পিউটার এক্সেসরিজ ও মোবাইল মোবাইল এক্সেসরিজ. এবং ইলেকট্রনিক্স পন্য মেলা দোকান স্টল বুকিং ও রেজিস্ট্রেশন চলছে। যোগাযোগ-০১৬১৫-৩৩২২২৯,০১৬১৫-৩৩২২৫১,০১৬১৫-৩৩২২২৬ , ০১৭১৯-২৫০২৪২,০১৭২১-১৮৪৮৩১

সৈয়দ মাহামুদ শাওন

ইংরেজ অফিসার ক্যাপ্টেন কক্স ১৭৯৯ খ্রিস্টাব্দে এখানে একটি বাজার স্থাপন করার পর থেকে জায়গাটির নাম হয়ে যায় কক্সবাজার।

-Theme Omor Plaza-

বিশ্বজোড়া মানুষের কাছে কক্সবাজার সুপরিচিত পৃথিবীর সবচাইতে লম্বা অবিচ্ছিন্ন সমুদ্র সৈকত হিসেবে। প্রায় ১২২ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সমুদ্র সৈকত প্রকৃতির এক অপূর্ব উপহার।

দিনটি ছিলো ৩ ই ডিসেম্বর ২০১৯ সাল হঠাৎ করে কোন মনে করলাম ভ্রমণ করতে যাবো কথায় যাওয়া যায়, ভাবতে ভাবতে মনে পড়ে গেলো দর্শনীয়স্থান মানেই তো কক্সবাজার সমুদ্রসৈকত, সেই খানে আমার আন্টি ও দুলা ভাই চাকরি করে, সেই সময় আবার আমার আন্টি দুই দিন পরে চলে যাবে কক্সবাজার উখিয়াতে আমার জন্যও টিকিট কাটলো তারা, রাজশাহী থেকে বিকাল ৫ টার দিকে শ্যামলী পরিবহন বাসে চড়লাম আমি, আন্টি, ফুফাতো ভাই,দাদি এবং আমাদের পাশের ইউনিয়নে আরেকজন চাকরি করে সেইখানে সেও আমার আত্নীয় মোট ৫ জন। ৫ ডিসেম্বর রওনা দিলাম কক্সবাজার এর উদ্দেশ্য ঠিক পরের দিন ৬ তারিখ সকাল ১১ টার দিকে নামলাম কক্স – বাজার কলাতলী আর্দশ গ্রামে। সেই খানে বাসা ভাড়া নিয়ে থাকে আমার আপু আর দুলাভাই। তাদের বাসাতে দুপুরে খাওয়া শেষে সন্ধ্যার আগ মূর্হতে চলে গেলাম সমুদ্রধারে। সেই খানে যেতে আমার মনে হলো আমি কথায় আসলাম আমি বিষ্ময় হয়ে কিছু সময় পানির দিকে তাকিয়ে ছিলাম, তবে সব চাইতে আমার ভালো লেগেছিলো পানির কোলাহল শব্দ। পানি ছুয়েছিলাম, এ সময়ের সূর্যাস্তের দৃশ্যও সুন্দর। ভাগ্য সহায় থাকলে আকাশে রংয়ের খেলা আর লাল থালার মতো সূর্য ডোবার দৃশ্যকিছু,কক্সবাজারের সবচাইতে মনোমুগ্ধকর ব্যাপারটি হলো এর বিচিত্রতা। আকারে অনেক লম্বা হওয়ায় একেক জায়গায় একেক রকমের সৈকত দেখতে পাওয়া যায়। ডিএসএলআর এবং ফোন দিয়ে ফটো তুললাম তারপরে ঠিক রাত ৮ দিকে ওই খানে একটি কনর্সাট হচ্ছিলো তা দেখলাম দেখার পরে বাসাতে ফিরে আসলাম। তারপরে দিন নোনা পানিতে কিছুক্ষণ দাপাদাপি করে
পরে দিন সকালে আন্টির বাসা উখিয়াতে ওইখানে চলে গেলাম।

আমার কাছে সারা বাংলাদেশের সবচাইতে সুন্দর জায়গাগুলোর একটি হল কক্সবাজারের হিমছড়ি। জায়গাটি কক্সবাজার মূল শহর থেকে বেশ খানিকটা দূরে। এখানে প্রায় হাজারখানেক সিঁড়ি বেঁয়ে উঠতে হলো হিমছড়ি পাহাড়ের উপর। এই পাহাড়ে উঠতেই দেখতে পেলাম দিগন্তজোড়া পাহাড়ের পর পাহাড়, যেন চলে এসেছেন সিলেট-মেঘালয় সীমান্তের কোল ঘেঁষে থাকা অঞ্চলগুলোতে।

তারপরে রোহিঙ্গা দের বাজার ঘুরলাম সেখানে ভালো ভালো জিনিস কম দামে পাওয়া যায় কিছু কিনলাম, তারপরের দিন রোহিঙ্গা দের দেখতে গেলাম,তাদের দেখলাম তাদের কথা গুলো আমি একটুকু বুঝতে পারছিলাম না, পাহাড়ের ওপর তারা ঘর নির্মান করে আছে তাদের দেখে আমি অবাক এতো উচু উচু পাহাড়ে তারা বাস করে,তারপরে আবার ফিরে আসলাম কক্সবাজার গেলাম কক্সবারের মেইন বাজারে ঘুরলাম সেই খানে বাদাম, এবং কম বেশি সবার প্রিয় চকলেট পিনাট অনেক গুলো কিনলাম। তারপরে ১ দিন নেমে গোষল করতে পানির স্রোত দিলো আমাকে ধাক্কা নিলাম পানি খেয়ো ওমা পানি যে এতো নোনতা ভাবতে ও পারিনি তারপরে ধীরে ধীরে ভয় কেটে গেলো, তবে সেই খানে আমি যতো দিন ছিলাম আমার মাথাতে কোন টেনশান বা বাড়িতে যাবো বলে মনে হচ্ছিল না, মনে হচ্ছিলো এইখানে সারাজীবন থাকি। এই ভাব ঘুরতে ঘুরতে ১৫/১৬ দিন ঘুরাঘুরি করলাম শেষ দিন সমুদ্রধারে সকালে শেষ গোষল করে,২৬ শে মার্চ বিকালে আবার রাজশাহী উদ্দেশ্যে দেশ ট্রাভেল গাড়িতে আমি একাই চলে আসলাম।

সৈয়দ মাহামুদ শাওন , তানোর-রাজশাহী

Theme Omor Plaza (Ad-4)
Theme Omor plaza