সর্বশেষ

32.8 C
Rajshahi
বুধবার, জুলাই ২৪, ২০২৪

গরমে শরীর ঠান্ডা করে ছাতুর শরবত

টপ নিউজ ডেস্ক:একসময় ঘরে ঘরে ছাতুর শরবত খাওয়া হতো। আবার বিকেলের মুড়িমাখায় একমুঠো ছাতুও মিশিয়ে দেওয়া হত। কিন্তু দিনে-দিনে জাঙ্ক ফুডের জনপ্রিয়তায় ছাতুর মতো উপকারী খাবারও এখন আর কেউ খেতে চান না।

ছাতুর শরবত একটি ঐতিহ্যবাহী খাবার। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন, প্রোটিন, ফাইবার, কার্বোহাইড্রেট, আয়রন, ক্যালসিয়াম আর খনিজ। এই গরমে রিফ্রেশিং পানীয়, সুস্বাদু স্ন্যাকস বা মিষ্টি ট্রিট হিসাবে আপনি বিভিন্ন রূপে ছাতু উপভোগ করতে পারেন। ছাতুর শরবত শরীর ঠান্ডা করার পাশাপাশি গরমে আপনাকে সুস্থ রাখবে। বিশেষ করে তাপ প্রবাহের সময় এটি প্রয়োজনীয়। কারণ, ছাতু আপনাকে ঠান্ডা এবং হাইড্রেটেড রাখতে সাহায্য করে। ছাতু আপনার ঘামের সময় হারিয়ে যাওয়া উপাদানগুলি নতুন করে প্রতিস্থাপন করতে এবং আপনাকে সারাক্ষণ হাইড্রেটেড রাখতে সহায়তা করে।এমনকি ওজন কমানো থেকে শুরু করে হজমে সাহায্য করার ক্ষেত্রেও ছাতুর অতুলনীয় ভূমিকা আছে।

এছাড়াও এই গরমে ছাতু খেলে আরও যেসব উপকারিতা পাবেন-

পেশি বৃদ্ধি: ছাতু প্রোটিনের একটি বড় উৎস। প্রোটিন পেশি ঠিক করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ এবং কোষগুলিকে সুস্থ রাখতে ও তার বৃদ্ধিকে সহায়তা করে। নিয়মিতভাবে  খাদ্যতালিকায় ছাতু যোগ করলে শরীরের সামগ্রিক কার্যকারিতায় সাহায্য করতে পারে। বিশেষ করে যদি আপনি মাংস বা দুগ্ধজাত খাবার না খান। ছাতু হজমে সাহায্য করে: ছাতু ফাইবার সমৃদ্ধ এবং এর পুষ্টির কারণে হজমে সহায়তা করে। ছাতুর মধ্যে থাকা প্রাকৃতিক এনজাইম খাদ্যকে ভেঙ্গে ফেলতে সাহায্য করে, যার ফলে শরীরের পুষ্টি শোষণ করা সহজ হয়। প্রতিদিন ছাতু খাওয়া হজমশক্তি বাড়াতে পারে।

হৃৎপিণ্ডের স্বাস্থ্য ভালো রাখে :ছাতুতে থাকা ফাইবার সমৃদ্ধ উপাদান উচ্চ কোলেস্টেরল কমিয়ে হৃৎপিণ্ড সুস্থ রাখতে সহায়তা করে। এতে থাকা ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম এবং অন্যান্য পুষ্টি উপাদান রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।

ওজন কমাতে সাহায্য করে: ছাতুতে থাকা প্রোটিন এবং ফাইবার ওজন নিয়ন্ত্রণে উপকারী। ছাতুর ফাইবার হজমে সহায়তা করে। রক্তে শর্করার পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখে।  গ্লাইসেমিক ইনডেক্স কম থাকায় এটি খেতে পারেন ডায়াবেটিস রোগীও। এর মধ্যে থাকা হাইফাইবার রক্তে চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। এছাড়া, পিরিয়ডচলাকারীন নারীর জন্য দুর্দান্ত এনার্জি ড্রিঙ্ক। এতে থাকা ম্যাগনেসিয়াম ও ক্যালসিয়াম হাড় মজবুত করে।

তবে যেকোনও খাবার বেশি খেলে তার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া থাকে, ছাতুর ক্ষেত্রেও রয়েছে। যেমন- আপনি যদি খুব বেশি ছাতু খান, তবে এর উচ্চ ফাইবারের কারণে পেটে গ্যাস বা ফোলা ভাব অনুভব করতে পারেন। খুব বেশি ছাতু খাওয়ার ফলে ওজন বাড়তে পারে। আপনার যদি ছোলা বা বেসন থেকে অ্যালার্জি থাকে তবে ছাতু থেকে দূরে থাকাই ভালো।

কীভাবে খাবেন ছাতুর শরবত : সাধারণত খালি পেটে পানিতে গুলিয়ে প্রতিদিন দুই টেবিল চামচ বা ২০ গ্রাম ছাতু খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। এটি আপনাকে পর্যাপ্ত প্রোটিন, ফাইবার এবং গুরুত্বপূর্ণ খনিজ পেতে সাহায্য করে।

সম্পাদনায়: আয়েশা ইসলাম

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles