সর্বশেষ

24.6 C
Rajshahi
Tuesday, December 7, 2021

Tuesday, December 7, 2021

মানিকহাট ইউপি নির্বাচনে সাংবাদিক শিহাবের উপরে সতস্ত্র প্রার্থীর লোকজনের হামলা।

রাজশাহীর থিম ওমর প্লাজায় বিনিয়োগের সুবর্ণ সুযোগ ঈদুল ফিতর উপলক্ষে অল্প কিছু সংখ্যক ফ্ল্যাট ও দোকান বিক্রয় চলছে। এককালীন মূল্য পরিশোধে বিশেষ মূল্য ছাড় !! যোগাগোঃ 01615-33 22 29,01615-33 22 51. Theme Omor Plazaকম্পিউটার,কম্পিউটার এক্সেসরিজ ও মোবাইল মোবাইল এক্সেসরিজ. এবং ইলেকট্রনিক্স পন্য মেলা দোকান স্টল বুকিং ও রেজিস্ট্রেশন চলছে। যোগাযোগ-০১৬১৫-৩৩২২২৯,০১৬১৫-৩৩২২৫১,০১৬১৫-৩৩২২২৬ , ০১৭১৯-২৫০২৪২,০১৭২১-১৮৪৮৩১

পাবনা প্রতিনিধিঃ
পাবনার সুজানগর উপজেলায় ১১ নভেম্বর আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পর্যবেক্ষক হিসেবে সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ আলোকিত ৭১ সংবাদ এর সম্পাদক অনান্য সকলের মতোই তিনি নির্বাচনের সকল তথ্য সংগ্রহের সময়ে তার বাসা থেকে সকাল ৮ ঘটিয়ার খাবার শেষ করে মানিকহাট ইউনিয়নের ৫নং ও ৬নং ওর্য়াড়ের দুইটা কেন্দ্র পরিদর্শন করেন।

তিনি তার উক্ত কেন্দ্র গুলো দেখার পরে বাকি কেন্দ্র গুলো সহ তার উপজেলায় মোট ১০ টি ইউনিয়ন এর ভোট দেখার জন্য বোনকোলা ঈগার মাঠ থেকে ৮:৪৫ মিনিটের দিকে বোনকোলা হাটের দিকে যায় তার সহকর্মী সাংবাদিকদের মাইক্রকো গাড়ির জন্য তিনি বোনকোলা বাজারে অবস্থান কালীন সময়ে তিনি আনারস প্রার্থীর সন্ত্রাসী হামলার শিকার হন।

- - Advertisement - -

উক্ত সন্ত্রাসী হালমায় মূল চক্রের অগ্রনায়ক ছিলেন মানিকহাট ইউনিয়ন পরিষদের সতন্ত্র প্রার্থীর কিছু গুন্ডা বাহিনী বোনকোলা গ্রামের রকি ও আব্বাস আলী মল্লিকের বেশকিছু লোক সহ সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ’কে পথিমধ্যে বোনকোলা বাজার বটতলায় রাস্তায় বেশ কিছু মানুষ মিলে তাকে নির্মমভাবে মারধর করে এবং সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে তাকে আরো মারধর করেন।।

তার সাথে থাকা তার পত্রিকার আইডি কার্ড, নির্বাচন পর্যবেক্ষণের কার্ড, ও তার দুইটা মোবাইল ফোন সহ সাথে থাকা সব কিছু আনারসের সতাস্ত্র বাহিনী নিয়ে নেয় এবং তাকে বর্তমান চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম আমিনের অফিস রুমে নিয়ে অস্ত্র দিয়ে ভয় দেখানো সহ তাকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে তার শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে এবং অকথ্য ভাষায় কথাবার্তা বলে।

ও তাকে চেয়ারম্যান এর রুমে বন্দি করে রাখে এই হামলার শিকার সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ ছিলেন আলোকিত ৭১ সংবাদ এর সম্পাদক তিনি উক্ত শিকারের বিষয় টি তার আশেপাশে থাকা ভ্রাম্যমাণ আদালত ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সহ প্রশাসনের উচ্চ অফিসারে নিকট তার ঐই ঘটনাটি বললে তারা বলেন থানায় মামলা দায়ের না করলে তারা কোন পদক্ষেপ গ্রহন করবে না, অন্যথায় প্রাশাসন তারা কোন কিছু না করায় পরে তার ঘটনা টি শুনার পরে আমিনপুর থানা ও বেড়া উপজেলার তিনজন সাংবাদিক তাকে নিরাপদে রাখার জন্য তাদের সাথে নিয়ে যায়।

উক্ত ঘটনা টি জানার পরে বিভিন্ন সাংবাদিক মহল থেকে সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ এর নিয়ে পত্র পত্রিকা সহ একাধিক টিভি চ্যালেন সহ প্রশাসনের উচ্চপদস্থ্ লোকজন তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানায় এবং সেই সাথে সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ এর হামলা করী ব্যক্তি গুলোর দ্রুত আইনের আওতায় এনে তাদের কঠোর বিচারের দাবী করেন এবং তারা বলেন সাংবাদিক শিহাব আহম্মেদ একজন সময়ে সাহসী সাংবাদিক তার হামলা কারীদের বিচার না হওয়া পর্যন্ত আমরা কঠোর আনন্দোলনের অবস্থান থাকবো।