সর্বশেষ

24.6 C
Rajshahi
Tuesday, December 7, 2021

Tuesday, December 7, 2021

রোনালদোদের হার, লিভারপুলের জয়

রাজশাহীর থিম ওমর প্লাজায় বিনিয়োগের সুবর্ণ সুযোগ ঈদুল ফিতর উপলক্ষে অল্প কিছু সংখ্যক ফ্ল্যাট ও দোকান বিক্রয় চলছে। এককালীন মূল্য পরিশোধে বিশেষ মূল্য ছাড় !! যোগাগোঃ 01615-33 22 29,01615-33 22 51. Theme Omor Plazaকম্পিউটার,কম্পিউটার এক্সেসরিজ ও মোবাইল মোবাইল এক্সেসরিজ. এবং ইলেকট্রনিক্স পন্য মেলা দোকান স্টল বুকিং ও রেজিস্ট্রেশন চলছে। যোগাযোগ-০১৬১৫-৩৩২২২৯,০১৬১৫-৩৩২২৫১,০১৬১৫-৩৩২২২৬ , ০১৭১৯-২৫০২৪২,০১৭২১-১৮৪৮৩১

টপ নিউজ ডেস্কঃ

- - Advertisement - -

বার্সেলোনা ছেড়ে গত আগস্টে পিএসজিতে যোগ দেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি। প্যারিসে আসার পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তিনটি গোল পেলেও দলটির জার্সিতে লিগ ওয়ানে গোল পাচ্ছিলেন না তিনি। অবশেষে কাটল খরা, ফ্রেঞ্চ লিগে নিজের ষষ্ঠ ম্যাচে পেলেন প্রথম গোলের দেখা। নঁতের বিপক্ষে গতকাল প্যারিসিয়ানরা ৩-১ গোল ব্যবধানে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে। অন্যদিকে ব্যর্থতার বৃত্তে ঘুরপাক খাওয়া ম্যানচেস্টার সিটিকে জয়ে ফেরাতে পারলেন না ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে গতকাল ওয়াটফোর্ডের বিপক্ষে ৪-১ গোলে হারে তার দল। লিগের অন্য ম্যাচে আর্সেনালকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে লিভারপুল। এদিকে লা লিগায় ফিরে বার্সেলোনাকে প্রথম ম্যাচেই সফলতা এনে দিল কোচ জাভি হার্নান্দেজ। এস্পানিওলের বিপক্ষে গতকাল তারা ম্যাচটি জিতে ১-০ গোল ব্যবধানে।
ঘরের মাঠে গতকাল ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানের ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতেছে পিএসজি। কিলিয়ান এমবাপ্পের গোলে শুরুতেই এগিয়ে যায় তারা। দ্বিতীয়ার্ধে নঁতের কোলো মুয়ানি সমতা টানার অল্প কিছুক্ষণ পর তাদের আত্মঘাতী গোলে আবারো এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। শেষে জয় নিশ্চিত করেন লিওনেল মেসি। প্যারিসের দলটির জার্সি গায়ে জড়ানোর পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গোলের দেখা পেলেও লিগ ওয়ানে তার গোল অভিষেক হয় গতকালই। লিগ ওয়ানে প্রথম গোলের জন্য মেসির অপেক্ষা শেষ হয় ৮৭তম মিনিটে। এমবাপ্পের পাস ধরে সামনের একজনকে কাটিয়ে বাঁদিকে একটু আড়াআড়ি গিয়ে বাঁ পায়ের ট্রেডমার্ক শটে দলকে উচ্ছ¡াসে ভাসান রেকর্ড ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলার।
এর আগে প্রথমার্ধে রক্ষণ সামলাতে ব্যস্ত নঁত দ্বিতীয়ার্ধে দারুণভাবে জেগে ওঠে। ম্যাচ শেষে তাই গোলের উদ্দেশ্যে শট নেয়ায় দুই দলই প্রায় সমানে সমান। পিএসজির ১৪ শটের সাতটি ছিল লক্ষ্যে, আর নঁতের ১২ শটের ছয়টি লক্ষ্যে। আন্তর্জাতিক বিরতির আগে সর্বশেষ লিগ ওয়ানে ম্যাচেও জালের দেখা পেয়েছিলেন এমবাপ্পে। মাঝে জাতীয় দলের হয়ে তো মেতেছিলেন গোল উৎসবে; বিশ্বকাপ বাছাইয়ে কাজাখস্তানের জালে চার গোল করার পর ইউক্রেনের বিপক্ষে করেন একটি। এবার ক্লাবে ফিরে দুই মিনিটের মাথায়ই পেলেন আবারো জালের দেখা। হঠাৎ পাওয়া বাঁ উরুর চোটে নেইমার তিন দিন আগে জাতীয় দলের হয়ে খেলতে পারেননি আর্জেন্টিনার বিপক্ষে। পিএসজির এই ম্যাচেও তাকে ঘিরে অনিশ্চয়তা ছিল যথেষ্ট। কিন্তু শুরুর একাদশেই নামলেন তিনি, প্রথম মিনিট থেকে দারুণ উজ্জীবিতও ছিলেন ব্রাজিলিয়ান তারকা। বিরতির পর দৃশ্যপটে পরিবর্তন আসার আভাস মেলে। ৬২তম মিনিটে তাদের মিডফিল্ডার লুদোভিচ ব্লাসের শট ঠেকিয়ে দেন পিএসজি গোলরক্ষক। ৬৫তম মিনিটে বড় ধাক্কাটি খায় পিএসজি। প্রতি-আক্রমণে দারুণ ক্ষিপ্রতায় এগিয়ে যান ব্লাঁস। তাকে রুখতে বক্সের বাইরে বেরিয়ে এসে কী বুঝে লাফিয়ে প্রতিপক্ষকে ফাউল করে বসেন কেইলর নাভাস। সঙ্গে সঙ্গে কোস্টারিকার এই গোলরক্ষককে লাল কার্ড দেখান রেফারি।
বাধ্য হয়ে নেইমারকে তুলে তৃতীয় পছন্দের গোলরক্ষক সার্জিও রিকোকে নামান কোচ। গোলপোস্টের নিচে দাঁড়ানোর দুই মিনিট পরই দারুণ এক সেভ করেন তিনি। ফিরিয়ে দেন ব্লাসের শট। তবে ৭৬তম মিনিটে ঠিকই গোল পেয়ে যায় সফরকারীরা। সতীর্থের ক্রসে মুয়ানির হেড ঝাঁপিয়ে ঠেকিয়ে দেন রিকো, তবে বল হাতে রাখতে পারেননি। জাগে অঘটনের শঙ্কা, যদিও সেটি বেশিক্ষণের জন্য নয়। পাঁচ মিনিট পর সৌভাগ্যবশত গোলে আবারও এগিয়ে যায় পিএসজি। ডি-বক্সে বাঁদিকে সতীর্থের উদ্দেশে বল বাড়ান আর্জেন্টাইন তারকা মেসি, স্লাইডে সেটাই আটকাতে গিয়ে নিজেদের জালে পাঠান ডিফেন্ডার দেনিস আপিয়া। ১৪ ম্যাচে ১২ জয় ও এক ড্রয়ে ৩৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে পিএসজি।
এদিকে আন্তর্জাতিক বিরতির পর ক্লাব ফুটবল মাঠে ফিরলেও ভাগ্য ফিরল না ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। প্রিমিয়ার লিগে আরেকটি হারের তেতো স্বাদ পেল উলে গুনার সুলশারের দল। প্রতিপক্ষের মাঠে গতকাল ৪-১ গোলে হারে ম্যানচেস্টারের ক্লাবটি। শেষ ২০ মিনিট একজন কম নিয়ে খেলা দলটি দুই অর্ধে হজম করে দুটি করে গোল। লিগে সর্বশেষ সাত ম্যাচে ইউনাইটেডের এটি পঞ্চম হার, জয় ও ড্র একটি করে। আন্তর্জাতিক বিরতির আগে তারা ম্যানচেস্টার সিটির কাছে হেরেছিল ২-০ গোলে। ওয়াটফোর্ডের বিপক্ষে দলের সেরা তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো একটি গোলে সহায়তা করেন বটে, তবে হাতছাড়া করেন কয়েকটি সুযোগও। ত্রয়োদশ মিনিটে পাল্টা আক্রমণে সুযোগ তৈরি করে ইউনাইটেড। ডি-বক্সে ঢুকে দুরূহ কোণ থেকে রোনালদোর শট ঠেকান এক ডিফেন্ডার। ২৮তম মিনিটে এগিয়ে যায় ওয়াটফোর্ড। ৩২তম মিনিটে সমতায় ফিরতে পারত ইউনাইটেড। ব্রুনো ফার্নান্দেসের ক্রস ডি-বক্সের সামনে খুঁজে পায় মার্কাস র?্যাশফোর্ডকে। ইংলিশ এই ফরোয়ার্ডের ভলি দারুণ দক্ষতায় ফেরান স্বাগতিক গোলরক্ষক বেন ফস্টার। বিরতির আগে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় ওয়াটফোর্ড। ডান দিকের বাইলাইনের কাছ থেকে ফেমেনিয়ার কাট-ব্যাক ডি-বক্সে নিয়ন্ত্রণে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে ম্যাকটমিনে ও র?্যাশফোর্ডকে তুলে ডনি ফন ডি বিক ও অঁতনি মার্সিয়ালকে নামান ইউনাইটেড কোচ।
বদলি নামার পাঁচ মিনিটের মধ্যেই ব্যবধান কমান ফন ডি বিক। ডান দিক থেকে জেডন স্যানচোর ক্রসে রোনালদোর হেড পাসে কাছ থেকে হেডে বল জালে পাঠান এই ডাচ মিডফিল্ডার। ৬৯তম মিনিটে বড় ধাক্কা খায় ইউনাইটেড। প্রতিপক্ষের টম ক্লেভারলিকে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ডিফেন্ডার হ্যারি ম্যাগুইয়ার। ৭৫তম মিনিটে স্যানচোর ক্রসে ডি-বক্সে রোনালদোর হেড ক্রসবারের সামান্য ওপর দিয়ে উড়ে যায়। দুই মিনিট পর পর্তুগিজ তারকা বল জালে পাঠালেও আগেই অফসাইডের পতাকা তোলেন লাইন্সম্যান। পাঁচ মিনিট যোগ করা সময়ে ইউনাইটেডের জালে আরো দুবার বল পাঠিয়ে বড় জয় নিশ্চিত করে ওয়াটফোর্ড। ১২ ম্যাচে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে সপ্তম স্থানে আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।
এদিকে জাভি হার্নান্দেস লা লিগায় প্রথম মাঠের পরীক্ষায় হয়েছেন সফল। বার্সেলোনার হয়ে ক্যারিয়ারের অধিকাংশ সময় মাঠ মাতিয়েছেন। এবার তিনি কোচ হয়ে ডাগ আউটে। কঠিন সময়ে বার্সেলোনাকে টেনে তোলার দায়িত্বে জয় দিয়ে শুরু হয়েছে পথচলা। মেমফিস দিপাইয়ের লক্ষ্যভেদে এসপানিওলকে ১-০ গোলে হারিয়েছে কাতালানরা। এরই সঙ্গে চার ম্যাচ পর জয়ের হাসি হেসেছেন সমর্থকরা। বার্সেলোনা ১৩ ম্যাচে পঞ্চম জয়ে ২০ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে উঠে এসেছে।

আন্তর্জাতিক বিরতির আগে ওয়েস্ট হ্যাম ইউনাইটেডের বিপক্ষে লিভারপুল হেরেছিল ৩-২ গোলে। এতে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে রেকর্ড ২৫ ম্যাচের অজেয় যাত্রা থামার সঙ্গে চলতি লিগে প্রথম হারের তেতো স্বাদও পেয়েছিল তারা। এর আগের রাউন্ডে ব্রাইটন অ্যান্ড হোভ অ্যালবিয়নের সঙ্গে ২-২ ড্র করেছিল দলটি। আর্সেনালের বিপক্ষে পুরো ম্যাচে আক্রমণে আধিপত্য করা লিভারপুল গোলের জন্য মোট ১৯টি শট নেয়, যার ৯টি ছিল লক্ষ্যে। আর সফরকারীদের ৫ শটের ৩টি লক্ষ্যে ছিল। লিভারপুলকে প্রথম সফলতা এনে দেন ম্যাচের ৩৯তম মিনিটে সেনেগাল ফরোয়ার্ড সাদিও মানে। ৫২ মিনিটে দলকে লিড এনে দেন ডিয়োগো জোতা। দলের তৃতীয় গোলটি করেন মোহাম্মদ সালাহ। ম্যাচের ৭৭ মিনিটে তাকুমি মিনামিনোর হাত ধরে চতুর্থ গোলের দেখা পায় লিভারপুল। ১২ ম্যাচে ৭ জয় ও ৪ ড্রয়ে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠেছে লিভারপুল। সমান ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে পাঁচে আর্সেনাল।