শ্রীনগরে আটপাড়ায় সড়কের পাশে ড্রেজার বাণিজ্যে ভোগান্তি

0
113

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি: শ্রীনগর উপজেলার আটপাড়া এলাকার শিমুলতলা সড়কের পাশে বালু ফেলে অবৈধভাবে ড্রেজার বাণিজ্যের কারণে মানুষের ভোগান্তি বেড়েছে। বালু ভর্তি ড্রাম ট্রাকগুলো সড়কের যেখানে সেখানে বালু ফেলে ও ঘুরানোর ফলে অন্যান্য যান চলাচলে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে উঠেছে। সড়কজুড়ে বালু ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকায় এসব বালু বাতাসে উড়ে মানুষের গায়ে এসে পড়ছে। এতে পথচারীরা স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে পড়ছেন। এছাড়াও দিনরাত সমান তালে বালুবাহী অসংখ্য দৈত্যকার ড্রাম ট্রাকের দখলে থাকে উপজেলার অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ব্যস্ততম এ সড়কটি।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শ্রীনগর-মুন্সীগঞ্জ আন্ত:সড়কের আটপাড়া ইউনিয়নের শিমুলতলা সড়কের উত্তর পাশে ও শ্রীনগর হিমাগারের পশ্চিম পাশে অবৈধভাবে একটি ড্রেজারের সাব-স্টেশন গড়ে তোলা হয়েছে। সড়ক সংলগ্ন সায়েদ মাঝির জায়গার পাশে কৃষিজমিতে বালু ফেলে এসব বালু ড্রেজার করে অন্যত্র বিক্রি করা হচ্ছে। বালু নেওয়ার ক্ষেত্রে ফসলী জমির ওপর দিয়ে দীর্ঘ পাইপলাইন টানা হয়েছে। এতে ফসলের ক্ষতি সাধন করা হচ্ছে।

স্থানীয় কৃষকরা জানায়, শিমুল তলার বোরহান দীর্ঘদিন যাবৎ প্রভাবখাটিয়ে এখানে ড্রেজার বাণিজ্য করে আসছে। কৃষি জমি ও ফসলের ক্ষতি হলেও কিছু বলতে পারছিনা।

ওই এলাকার দ্বিপক ও পলাশসহ রাস্তার পাশের দোকানীরা জানায়, প্রতিনিয়ত এখানে ড্রাম ট্রাক দিয়ে বালু আনা হচ্ছে। সড়কে বালুর আস্তর জমে গেছে। মাঝে মধ্যেই সড়কে জমে থাকা বালুতে মোটরসাইকেল ও অটোর চাকা ¯িøপ করে দুর্ঘটনার শিকার হচ্ছে পথচারী। অপরদিকে এসব বালু বাতাসে উড়ে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ও পথচারীদের গায়ে এসে পড়ছে। পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। দেখার ও বলার কেউই নেই।

সায়েদ মাঝির কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার জায়গাটি ড্রেজার ব্যবসায়ী ব্যবহার করছেন। যদিও সড়কের বালুর কারণে মানুষের সমস্যা হচ্ছে।

মো. বোরহানের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি দম্ভ করে বলেন, যেখানে বালুর স্তুুপ করা হয়েছে এ জায়গাটি আমার। আর যেখানে বালুভরাট করা হচ্ছে ওই জমিটিও আমার। বিনা পারমিশনে কৃষি জমি ভরাট করে রকম পরিবর্তন করা কতটা যুক্তিসংঘত এমন প্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন, সবাই তা করে, আমিও করছি। এতে আপনাদের সমস্যা কোথায়? মানুষের দুর্ভোগ লাঘবে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সংশ্লিষ্ট কমকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা।

এ ব্যাপারে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. আবুল হোসেনের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ড্রেজার ব্যবসায়ী বোরহান আমার এলাকার ছেলে আমি ওর বিষয়ে কিছু বলতে পারবো না। অবৈধভাবে ড্রেজার বাণিজ্য করে একালায় রাস্তাসহ কৃষিজমির ক্ষতিসাধন ও জনগণের ভোগান্তির সৃষ্টি হচ্ছে একজন জনপ্রতিনিধি হিসেবে আপনার কি দায়িত্ব কর্তব্যের মধ্যে পরে কিনা এমন প্রশ্নে জবাবে তিনি এড়িয়ে যান।

আপনার মন্তব্য