সর্বশেষ

24.6 C
Rajshahi
Tuesday, December 7, 2021

Tuesday, December 7, 2021

২১শে আগস্ট: শেখ হাসিনার ওপর গ্রেনেড হামলার ঘটনা আদালতের পর্যবেক্ষণে যেভাবে উঠে আসে!

রাজশাহীর থিম ওমর প্লাজায় বিনিয়োগের সুবর্ণ সুযোগ ঈদুল ফিতর উপলক্ষে অল্প কিছু সংখ্যক ফ্ল্যাট ও দোকান বিক্রয় চলছে। এককালীন মূল্য পরিশোধে বিশেষ মূল্য ছাড় !! যোগাগোঃ 01615-33 22 29,01615-33 22 51. Theme Omor Plazaকম্পিউটার,কম্পিউটার এক্সেসরিজ ও মোবাইল মোবাইল এক্সেসরিজ. এবং ইলেকট্রনিক্স পন্য মেলা দোকান স্টল বুকিং ও রেজিস্ট্রেশন চলছে। যোগাযোগ-০১৬১৫-৩৩২২২৯,০১৬১৫-৩৩২২৫১,০১৬১৫-৩৩২২২৬ , ০১৭১৯-২৫০২৪২,০১৭২১-১৮৪৮৩১

টপ নিউজ ডেস্ক : হামলায় অল্পের জন্যে বেঁচে যান আওয়ামী লীগের নেত্রী ও বর্তমানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় ২০০৪ সালের ২১শে আগস্ট আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলার সাথে জড়িত থাকার দায়ে তৎকালীন সরকারের দু ‘জন মন্ত্রীসহ ১৯ জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছিলো ঢাকার একটি আদালত।

লুৎফুজ্জামান বাবর এবং আব্দুস সালাম পিন্টু ছিলেন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বাধীন বিএনপি সরকারের মন্ত্রিসভার সদস্য।

103637651 20180930 131312
- - Advertisement - -

এছাড়া, সশ্রম কারাদণ্ডে দণ্ডিত হন বিএনপির বর্তমান ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, সাবেক প্রতিমন্ত্রী কাজী শাহ মোফাজ্জল হোসেন কায়কোবাদ সহ ১৯ জন অভিযুক্ত।

২০১৮ সালের অক্টোবরে মাসে ওই রায় দেয়া হয়েছিল।

গ্রেনেড হামলার ঘটনায় দায়ের করা হত্যা ও বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে দায়ের করা পৃথক দুটি মামলায় সাজা ঘোষণার পাশাপাশি আদালতের পর্যবেক্ষণে উঠে এসেছিলো বেশ গুরুত্বপূর্ণ কিছু মন্তব্য, যা মামলার সাথে সংশ্লিষ্ট আইনজীবীরা পরবর্তীতে গণমাধ্যমের কাছে তুলে ধরেন।

21th August Nobobarta 600x337 1

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীদের একজন মোশাররফ হোসেন কাজল বিবিসি বাংলাকে বলছেন যে আওয়ামী লীগকে নিশ্চিহ্ন করতেই ২১শে আগস্টের হত্যাকাণ্ড চালানো হয়েছে এবং এই হত্যাকাণ্ডে রাষ্ট্রযন্ত্র জড়িত ছিল বলে রায়ের পর্যবেক্ষণে তখন উঠে এসেছিলো। আদালতের রায় ঘোষণার পর তিনি সাংবাদিকদের বলেছিলেন, “আদালত তার পর্যবেক্ষণে বলেছেন ১৯৭৫ সালের ১৫ই অগাস্টের মতোই ২১শ অগাস্টের হামলার মাধ্যমে শেখ হাসিনাকে হত্যা এবং আওয়ামী লীগকে নেতৃত্বশূন্য করতে চেয়েছিল৷ আর এই ষড়যন্ত্রে তখনকার সরকার ও রাষ্ট্রযন্ত্র জড়িত৷ তারেক রহমানের হাওয়া ভবনে বসে এই হামলার ষড়যন্ত্র হয়েছে৷ তবে তারেক রহমানের দল বিএনপি সবসময়ই এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করে আসছে।

হাওয়া ভবন সম্পর্কে আদালতের পর্যবেক্ষণের বিষয়য়ে মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, “তারা এক ও অভিন্ন উদ্দেশে এই ষড়যন্ত্র করে আইনের আশ্রয়ে এই অপরাধীদের সোপর্দ না করে তারা এই ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নে কাজ করেছে।”

রায়ে বলা হয়, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান, হারিছ চৌধুরীসহ যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা গ্রেনেড হামলার পরিকল্পনা ও আলামত ধ্বংসে নেতৃত্ব দিয়েছেন। এ পরিকল্পনার অপরাধে তাদের যাবজ্জীবন দেয়া হয়।

resize 600x315x1x0 image 176463 1597947775

রায়ের পর্যবেক্ষণে বলা হয়, এটি ছিল পরিকল্পিত গ্রেনেড হামলা, যা তৎকালীন বিরোধী দলের নেতা শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে চালানো হয়। রায়ে ভবিষ্যতে যেন এ ধরনের ঘটনা না ঘটে, সেজন্য আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে সর্তক থাকার নির্দেশ দেয় আদালত।

মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, তখন আদালতের পর্যবেক্ষণে প্রশ্ন তোলা হয়েছিলো যে ‘রাজনীতি মানে কি বিরোধী দলের ওপর পৈশাচিক আক্রমণ?’

ঘটনার পরের দিন শেখ হাসিনা যখন সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন, তখনও তিনি হত-বিহ্বল

রায়ে বলা হয়েছিলো, “এই রাজনীতি এ দেশের জনগণ চায় না। সরকারি ও বিরোধী দলের মধ্যে শত বিরোধ থাকবে, তাই বলে নেতৃত্বশূন্য করার চেষ্টা চালানো হবে? রাজনীতিতে এমন ধারা চালু থাকলে মানুষ রাজনীতি বিমুখ হয়ে পড়বে।

রায় ঘোষণার পর আইনজীবীদের উদ্ধৃত করে আদালতের আরেকটি পর্যবেক্ষণ প্রকাশিত হয়েছিলো গণমাধ্যমে।

unnamed 2

তাতে বলা হয়েছে, “আদালত এ দেশে আর এমন হামলার পুনরাবৃত্তি চান না—মন্তব্য করে বিচারক শাহেদ নূর উদ্দীন বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়ার ওপর হামলা বা রমনা বটমূলে হামলার মতো ঘটনার পুনরাবৃত্তি চায় না”।

গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে ক্ষমতায় যে দলই থাকবে, বিরোধী দলের প্রতি তাদের উদারনীতি প্রয়োগের মাধ্যমে গণতন্ত্র সুপ্রতিষ্ঠিত করার প্রচেষ্টা থাকতে হবে বলেও পর্যবেক্ষণে উঠে আসে।

মোশাররফ হোসেন কাজল জানান, তখন রায় ঘোষণার সময় আদালত বলেছিলেন যে রাজনৈতিক জনসমাবেশে গ্রেনেড হামলা চালিয়ে রাজনৈতিক নেতা ও সাধারণ জনগণকে হত্যার এ ধারা চালু থাকলে সাধারণ মানুষ রাজনীতি বিমুখ হয়ে পড়বে।

আদালতে ঘোষিত রায়ে বলা হয়েছিলো যে বিরোধী নেতাদের হত্যা করে ক্ষমতাসীনদের রাজনৈতিক ফায