আর্থিক-মানসিক বিপর্যয়ে বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ে নিরাপত্তা খোঁজেন

0
33

টপ নিউজ ডেস্কঃ ১৯৭৫ সালের সেই কালরাতে সব হারিয়ে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের দুই মেয়ে দিশেহারা বিদেশের মাটিতে । একদিকে স্বজনহারা, আরেক দিকে নিরাপত্তার চিন্তা নিজেদের । ১৫ আগস্টের পর থেকে মূল চিন্তা হয়ে উঠলো— নিরাপদ বাসস্থান তাদের । বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ রেহানা বিভিন্ন সময় সাক্ষাৎকারে বলেছেন, আর্থিক ছিল প্রধান সংকট । ভারতের সঙ্গে যোগাযোগ করা এবং নিরাপদে থাকার মতো বিষয়গুলো তখন ভাবতে হচ্ছিল একইসঙ্গে । শেখ হাসিনার স্বামী ড. ওয়াজেদ মিয়ার অবস্থা তখন অপ্রকৃতিস্থ একজন
মানুষের মতো। নিজেদের অজানা অনিশ্চিত ভবিষ্যৎ নিয়ে গভীরভাবে চিন্তিত তিনি । যদিও কিছু মানুষ ওই দুঃসময়েও তাদের প্রতি বাড়িয়ে দিয়েছেন সহযোগিতার হাত এবং তাদের জন্য চেয়েছেন কিছু করতে ।

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর তার দুই মেয়ে শেখ হাসিনা ও শেখ রেহানার লড়াই-সংগ্রামের জীবন নিয়ে কথাসাহিত্যিক আনোয়ারা সৈয়দ হক উপন্যাস লিখেছেন । ‘হে সন্তপ্ত সময়’ নামের উপন্যাসে ইউরোপের বিভিন্ন দেশ ১৯৭৫-৮১ কালপর্বে বৈরী বাস্তবতায় এবং ভারতে বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ের আলোকপাত করা হয়েছে সংগ্রামমুখর জীবন নিয়ে । জার্মান প্রবাসী লেখক সরাফ আহমেদ প্রবাসে সম্প্রতি লিখেছেন বঙ্গবন্ধুর দুই মেয়ের দুঃসহ জীবন গ্রন্থে — ছোটবড় যত প্রতিবন্ধকতার কথা সেই সময়ের ।

সম্পাদনায়ঃ পূরবী রায় ।

আপনার মন্তব্য