এমপি মহোদয় ও আমাকে জড়িয়ে প্রকাশিত সংবাদ মিথ্যা ও ভূয়া : অধ্যক্ষ সেলিম রেজা

0
49
এমপি মহোদয় ও আমাকে জড়িয়ে প্রকাশিত সংবাদ মিথ্যা ও ভূয়া : অধ্যক্ষ সেলিম রেজা
এমপি মহোদয় ও আমাকে জড়িয়ে প্রকাশিত সংবাদ মিথ্যা ও ভূয়া

নিজস্ব প্রতিবেদক: এমপি মহোদয় ও আমাকে জড়িয়ে প্রকাশিত সংবাদ মিথ্যা ও ভূয়া বললেন রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার রাজাবাড়ী ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ সেলিম রেজা। বৃহস্পতিবার ( ১৪ জুলাই) নিউমার্কেট সংলগ্ন পার্টি অফিসে এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

বুধবার(১৩ জুলাই) জাতীয় দৈনিকসহ বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে একটি প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। প্রতিবেদনটিতে বলা হয়, গত ৭ জুলাই রাতে নগরীর নিউমার্কেট সংলগ্ন থিম ওমর প্লাজায় এমপি ওমর ফারুক চৌধুরীর চেম্বারে অধ্যক্ষ সেলিম রেজাকে বেপরোয়াভাবে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। ঘটনার সত্যতা জানাতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

অধ্যক্ষ সেলিম রেজা বলেন, গত ১৩ জুলাই ২০২২-এ দৈনিক যুগান্তর পত্রিকায় আমার এবং এমপি মহোদয়কে নিয়ে যে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে তা আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে- যা মিথ্যা, ভিত্তিহীন ও মনগড়া। তিনি বলেন একটি রাজনৈতিক মহল আসন্ন তানোর উপজেলা কাউন্সিলিংকে কেন্দ্র করে এই অপপ্রচার করছে। তিনি আরও বলেন, ‘ঈদ উপলক্ষে গত ৭ জুলাই আব্দুল আওয়াল রাজু আমাদের ফোন করে এমপির কার্যালয়ে আসতে বলেন। সেখানে ৭/৮ জন অধ্যক্ষ ও উপাধ্যক্ষ উপস্থিত হয়। পরে আমাদের অধ্যক্ষ ফোরামের কমিটি গঠন ও অভ্যন্তরীণ অন্যান্য বিষয় নিয়ে নিজেদের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়। এক পর্যায়ে আমাদের মধ্যে ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটে। এ সময় এমপি আমাদেরকে নিবৃত করেন। এছাড়া আর অন্য কোনো ঘটনা ঘটেনি সেখানে।’

তিনি তার বক্তব্যে আরও বলেন, সাংবাদিক পরিচয় গোপন করে গোয়েন্দা বিভাগের নাম নিয়ে একজন ব্যক্তি আমার বাসায় প্রবেশ করে। এর আগে আমাকে অভিযোগ করার জন্য বিভিন্নভাবে উস্কানি দেওয়া হয়। আমার ছবি তোরার চেষ্টা করা হয় আমি ছবি তুলতে দেয়নি। আমি কোনো অভিযোগ বা মন্তব্য দেয় নি। তারপরও আমাকে ও এমপি মহোদয়কে নিয়ে মিথ্যা সংবাদ পরিবেশিত হয়েছে।’

বিষটি নিয়ে সংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মাটিকাটা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ও আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল আউয়াল রাজু গণমাধ্যমকে বললেন, ‘ঈদ উপলক্ষে অধ্যক্ষ ফোরামের পক্ষ থেকে সংসদ সদস্যের সঙ্গে দেখা করার জন্য তিনিই সব অধ্যক্ষকে ফোন করে ডাকেন। সেখানে ফোরামের কমিটি গঠন এবং আয়-ব্যয়ের হিসাব নিয়ে তর্কবিতর্ক হয়। একপর্যায়ে তিনিই অধ্যক্ষ সেলীম রেজাকে ধাক্কা দেন। এ সময় সেখানে থাকা আলমারি ও চেয়ারে ধাক্কা খেয়ে সেলীম রেজা আহত হন। এমন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার জন্য আমি সকলের কাছে ক্ষমা চাচ্ছি। ’ 

সম্পাদনায় : শিরাজী ফেরদৌস ইমন

আপনার মন্তব্য