ছাত্রলীগের আন্দোলনে পরীক্ষা আটকে গেলো চবিতে

0
31

টপ নিউজ ডেস্কঃ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি পুনর্গঠনের দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য অবরোধের ডাক দিয়েছে চবি শাখা ছাত্রলীগের একাংশের নেতা–কর্মীরা। ফলে ক্যাম্পাসে অচলাবস্থা বিরাজ করছে। চারটি বিভাগের চূড়ান্ত পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, আজ সোমবার পাঁচটি বিভাগ ও ইনস্টিটিউটের বিভিন্ন বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা ছিল।

এগুলো হলো চারুকলা ইনস্টিটিউট, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, ইনস্টিটিউট অব মেরিন সায়েন্সেস, ফাইন্যান্স বিভাগ ও ফিজিক্যাল এডুকেশন অ্যান্ড স্পোর্টস সায়েন্স বিভাগ।

ভারপ্রাপ্ত পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক চৌধুরী আমির মোহাম্মদ মুছা সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, যেহেতু শাটল ট্রেন ও শিক্ষকের বাস ক্যাম্পাসে আসতে পারেনি। তাই এই চারটি বিভাগের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়েছে। এ ছাড়া নগরের চারুকলা ইনস্টিটিউটের স্নাতকোত্তরের পরীক্ষা ছিল। এ ব্যাপারে তিনি এখনো নিশ্চিত নন। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা ইনস্টিটিউটের অবস্থান ক্যাম্পাস থেকে ২২ কিলোমিটার দূরে। ক্যাম্পাসে অবরোধ থাকলেও এর খুব একটা প্রভাব ওই ইনস্টিটিউটের শিক্ষার্থীদের মধ্যে পড়ে না।

এদিকে চারুকলা ইনস্টিটিউটের পরিচালক প্রণব মিত্র চৌধুরী জানান, তাঁদের ইনস্টিটিউটের পরীক্ষা চলছে।

খোজ নিয়ে জানা গেছে, গত রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টায় ৩৭৬ সদস্যের কমিটি ঘোষণা করা হয়। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি আল নাহিয়ান খান জয় ও সাধারণ সম্পাদক লেখক ভট্টাচার্য এ কমিটির অনুমোদন দেন। এর আগে ২০১৯ সালের ১৪ জুলাই রেজাউল হককে সভাপতি ও ইকবাল হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করে দেয় কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। পূর্ণাঙ্গ কমিটির ঘোষণা দেওয়ার পর থেকেই পদবঞ্চিত নেতারা দলে দলে জড়ো হতে থাকেন। এরপর রাত একটায় মূল ফটক আটকে বিক্ষোভ শুরু করেন। এ সময় কমিটি পুনর্গঠিত না হওয়া পর্যন্ত ক্যাম্পাসে অবরোধ করার ঘোষণা দেন তাঁরা।

এর জেরে সকাল আটটার দিকে নগরের ঝাউতলা রেলস্টেশন থেকে শাটলের চালককে অপহরণের ঘটনা ঘটে বলে নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে।

সম্পাদনায়ঃ শাহাাদাত হোসাইন

আপনার মন্তব্য