বাড়ছে ৫৩ ওষুধের দাম

0
48

টপ নিউজ ডেস্কঃ স্বাস্থ্যসেবায় অপরিহার্য ওষুধ । করোনার সংক্রমণ, ডেঙ্গুজ্বরের বিস্তার মানুষের স্বাস্থ্যকেন্দ্রিক বেড়েছে জটিলতা । এরই মধ্যে প্রাথমিক চিকিৎসায় বহুল ব্যবহৃত ২০টি জেনেরিকের ৫৩ ব্র্যান্ডের ওষুধের দাম বাড়ানোর সরকার সিদ্ধান্ত নিয়েছে । নতুন নির্ধারিত মূল্য অনুযায়ী প্যারাসিটামলের ৫০০ এমজির প্রতিটি ট্যাবলেট ৭০ পয়সা থেকে বাড়িয়ে এক টাকা ২০ পয়সা করা হয়েছে । কিছু ওষুধের দাম ১০০ শতাংশেরও বেশি বেড়েছে । অর্থাৎ আগে যে দামে ওষুধ কেনা যেতো, এখন তার চেয়ে গুনতে হবে দ্বিগুণ টাকা ।

জানা গেছে, গত ৩০ জুন স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত ওষুধের মূল্যনির্ধারণ কমিটির ৫৮তম সভায় এসব ওষুধের পুনর্নির্ধারিত দাম অনুমোদন করা হয় বলে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর জানিয়েছে । তবে এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত অধিদপ্তর কোনো বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেনি । সর্বশেষ ২০১৫ সালে বাড়ানো হয়েছিল কয়েকটি ব্র্যান্ডের ওষুধের দাম । প্রায় সাত বছর পর আবারও অতিপ্রয়োজনীয় ওষুধের দাম বাড়ানো হচ্ছে ।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছে, প্রাথমিক স্বাস্থ্যসেবার জন্য সরকারের হাতে তালিকাভুক্ত ১১৭টি ওষুধের দাম বাড়ানোর ক্ষমতা থাকে । ওষুধ উৎপাদনে ব্যবহৃত কাঁচামাল, এক্সিপিয়েন্ট, প্যাকেজিং ম্যাটেরিয়াল, ডলারের বিনিময়মূল্য, পরিবহন ও ডিস্ট্রিবিউশন ব্যয়, মুদ্রাস্ফীতিসহ নানা কারণে ওষুধের খরচ বেড়েছে। এসব কারণে বাড়ানো হয়েছে ওষুধের দাম ।

সম্পাদনায়ঃ পূরবী রায় ।

আপনার মন্তব্য