বেড়েছে শাক-সবজির দাম, কমেছে সরবরাহ

0
39

টপ নিউজ ডেক্স: বন্যা ও বৃষ্টির কারণে বাজারে সবজির সরবরাহ কিছুটা কমেছে, কিন্তু বেড়েছে চাহিদা। ফলে কিছু সবজির দাম কেজিতে পাঁচ থেকে ১০ টাকা বেড়েছে। আজ শুক্রবার সকালে রাজশাহী মহানগরীর নিউমার্কেট কাঁচাবাজার, মাষ্টারপাড়া কাঁচাবাজার  সহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলে এসব তথ্য জানা যায়।

জানা গেছে সিলেট সহ কুড়িগ্রাম, পঞ্চগড় এলাকার সব ধরনের শাক-সবজির ক্ষেত তলিয়ে গেছে। যে কারণে  উত্তরাঞ্চল সহ বিভিন্ন এলাকা থেকে শাকসবজি চলে যাচ্ছে ঐসব এলাকাতে। আর এই কারণেই রাজশাহী সহ বিভিন্ন এলাকাতে কেজিতে ৫ থেকে ১০ টাকা বেড়েছে শাক সবজির দাম।

একজন ব্যবসায়ী বলেন, ‘দেশের বিভিন্ন জেলায় বন্যার কারণে  এলাকাতে সবজি নাই বললেই চলে কারণ অনেকেই শুকনা খাবারের পাশাপাশি ত্রান হিসেবে ফরমূল সহ বিভিন্ন শাকসবজিও দিচ্ছেন, যার কারণে বেগুন, শসা, লাউ, চালকুমড়া, লতিসহ কয়েকটি সবজির দাম বেড়েছে। খুচরায় প্রতি কেজি শসা ৫০ থেকে ৬০ টাকা, বেগুন ৪০ থেকে ৪৫ টাকা, চিচিঙ্গা, করলা, কাঁকরোল, পটোল ৩০-৩৫ টাকা, লাউ পিস ৪০ টাকা, চালকুমড়া পিস ৩০ টাকা, লতি ৪০ টাকা, কাঁচা মরিচ ৬০ টাকা, টমেটো ১২০ টাকা, চায়না গাজর ১৫০ টাকা কেজিতে বিক্রি করা হচ্ছে।

 তবে প্রায় স্থিতিশীল রয়েছে মাছবাজার, দেখা গেছে নলা রুই (৬০০ থেকে ৭০০ গ্রাম) প্রতি কেজি ২০০ টাকা, রুই (৮০০ থেকে ৯০০ গ্রাম) প্রতি কেজি ২১০ টাকা, এক থেকে দেড় কেজি ওজনের রুই ২৪০ থেকে ২৮০ টাকা, দুই থেকে তিন কেজি ওজনের রুই প্রতি কেজি ৩০০ থেকে ৩৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। কাতল তিন থেকে চার কেজি ওজনের ৩২৫ টাকা কেজি, পাঙ্গাশ ১৫০ টাকা, শরপুঁটি বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকা, তেলাপিয়া ১৭০ টাকা, পাবদা ৩৫০ থেকে ৪০০ টাকা, শিং সাইজভেদে ৩৫০ থেকে ৫০০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। ক্রেতার নাগালের বাইরে ইলিশ মাছ। ৭০০ থেকে ৮০০ গ্রাম ওজনের ইলিশ বিক্রি হচ্ছে এক হাজার ২০০ টাকা কেজি দরে।

এদিকে অপরিবর্তিত রয়েছে মুরগির বাজার। ব্রয়লার কেজি ১৫০ টাকা, সোনালি ২৭০ টাকা, দেশি মুরগি ৫৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। মুরগির ডিমের ডজন ১৩০ টাকা। গরুর মাংস কেজি ৬৮০ থেকে ৭০০ টাকা, খাসির মাংস ৯০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

সম্পাদনায়:শাহাদাত হোসাইন

আপনার মন্তব্য