সর্বশেষ

28.8 C
Rajshahi
রবিবার, জুলাই ১৪, ২০২৪

বৈদ্যুতিক খুঁটি ও কালভার্টের কারণে মারাত্বক ঝুঁকিতে গোদাগাড়ীর ভেতর পাশের জনগণ

শিরাজী ফেরদৌস ইমন :  রাস্তার পাশে ঢলে আছে সারি সারি বৈদ্যুতিক খুঁটি-যে কোন মুহুর্তেই চলাচল কারী যানবাহন কিংবা পথচারীর উপর পড়ে গিয়ে ঘটতে পারে মারাত্বক কোন দূর্ঘটনা! কিন্তু যেন দেখার কেউ নেই। তার উপরে মরার উপর খাঁড়ার ঘা হিসেবে যুক্ত হয়েছে নব নির্মিত তিনটি কালভার্ট যেখানে রাস্তা সঠিকভাবে রিপেয়ারিং না করায় ভীষণ ঝুঁকি নিয়ে যাবাহন পারাপার হচ্ছে, প্রতিদিনই ঘটছে ছোট-খাটো দূর্ঘটনা।

রোডস এন্ড  হাইওয়ের পরিকল্পনাহীন ও উদাসীন কার্যকলাপের জন্য যে কোন মুহুর্তেই ঘটে যেতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা। বর্ণিত পরিস্থিতির শিকার রাজশাহী-চাপাঁইনবাবগঞ্জ মহাসড়কের ভিতর পাস নামে পরিচিত বিজয় নগর মাটিকাটা  ভেতর পাশ রাস্তার।

বহুদিন পূর্বে ভেতর পাশে (মাটিকাটা বাইপাস থেকে বিজয় নগর পর্যন্ত) রাস্তার পাশে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড গ্রাহকদের মাঝে বিদ্যুৎ বিতরণের উদ্দেশ্যে  বৈদ্যুতিক খুঁটি স্থাপন করে। বর্তমানে বহু বছরের পুরোনো  হওয়ার কারণে খুঁটিগুলো জরাজীর্ণ ও  দূর্বল হয়ে হয়ে পড়েছে। ফলে একটু ঝড় বা বৃষ্টি হলেই খুটিগুলো কখনো নুয়ে পড়ে বা ভেঙে গিয়ে বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনে বিঘ্ন ঘটে থাকে। তাই নর্থ ইস্টার্ন ইলেকট্রিসিটি সাপ্লাই কোম্পানি নেসকো বিদ্যুৎ বিতরণ বিক্রয়ের দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই গোদাগাড়ীর বিভিন্ন স্থানের মত ভেতর পাশেও পুরোনো খুটি পরিবর্তন করে নতুন বৈদ্যুতিক খুটি স্থাপনেন কার্যক্রম শুরু করে প্রায় দুই বছর আগে। বহুদিন পূর্বে কাজ শুরু হলেও নেসকো কর্তৃক নিয়োগকৃত ঠিকাদার দের চরম উদাসীনতার কারণে আজও সম্পন্ন হয়নি বিজয়নগর থেকে মাটিকাটা পর্যন্ত নতুন খুঁটি স্থাপনের কার্যক্রম।

টপনিউজ২৪ অনলাইন ডটকমের পক্ষ থেকে এ বিষয়ে নেসকো কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ এর জন্য ফোন করা হলেও কেউ ফোন রিসিভ করেন নি। বিদুৎ এর ঝুলে থাকা খুঁটির সাথে ভেতর পাশে যোগ হয়েছে সেখেরপাড়া,প্রেমতলী কুমরপুর নামক স্থানে রোডস এ্যান্ড হাইওয়ে কতৃক পানি নিষ্কাশনের জন্য নির্মিত তিনটি কালভার্ট। যেগুলো নির্মাণের পর সঠিকভাবে রোড মেরামত না করায় সংযোগ স্থলে বৃষ্টি হলেই পানি জমে যাওয়ায় ব্যাটারি চালিত অটোরিকশা উল্টে প্রায় প্রতিদিনই ঘটছে ছোট-খাট দূর্ঘটনা। সেই সাথে বালু ও মাটি মাটিবাহী বড় বড় ট্রাকগুলো বেপরোয়া গতিতে চলায় যেমন অধিক খানা-কন্দের সৃষ্টি তেমন প্রতিনিয়তই ঘটছে ছোট বড় দূর্ঘটনার এমনি ট্র্যাক এক্সিডেন্টে অনেক পথচারীর মত্যুও হয়েছে।

টপনিউজ২৪ অনলাইন ডটকম এ ব্যাপারে অত্র অঞ্চলের একজন ভুক্তভুগী জনাব সাদিকুল ইসলাম এর আলাপ করলে তিনি জানান আমরা ভেতর পাশের জনগণ ঝুলে পড়া বৈদ্যুতিক খুঁটি,নবনির্মিত কালভার্ট ও দ্রুতগতির ট্রাকের কারণে মারাত্বক ঝুঁকির মধ্যে রাস্তায় চলাচল করছি,বিশেষ করে স্কুলগামী ছোট ছোট শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে পাঠাতেই অভিভাবকরা ভয় পাচ্ছেন অনেকে বৃষ্টি নিজদের সন্তানদের আর বিদ্যালয়ে পাঠাচ্ছেন না। বার বার চেয়ারম্যান মেম্বারদের বলেও কোন সমাধান পাওয়া যাচ্ছেনা।

তিনি উল্লেখিত সমস্যাগুলোর দ্রুত সমাধানের জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের শুভদৃষ্টি কামনা করেন।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles