সর্বশেষ

36.1 C
Rajshahi
শুক্রবার, জুন ২১, ২০২৪

মাহে রমজান -৯

পবিত্র মাহে রমজান উপলক্ষে টপ নিউজের প্রতিদিনের বিশেষ আয়োজন ……

পবিত্র মাহে রমজানের আজ নবম তম দিন। মানবতার মুক্তির দূত বিশ্বনবী (সা.) রমজানের গুরুত্ব ও মাহাত্ম্য সম্পর্কে আরো বলেছেন,হে মানব সকল ! তোমরা তোমাদের আত্মাকে নিজ কামনা-বাসনার দাসত্বে পরিণত করেছো,সুতরাংআল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে একে মুক্ত করো ৷ তোমাদের নিজেদের পিঠ গোনাহর ভারে ভারাক্রান্ত হয়ে আছে,তাই সেজদাগুলোকে দীর্ঘায়িত করে পিঠকে হালকা করো ৷    

   আর জেনে রাখ মহান আল্লাহ নিজ সম্মানের শপথ করে বলেছেন,রমজান মাসে নামাজ আদায়কারী ও সেজদাকারীদেরকে শাস্তি বা আজাব দিবেন না এবং কিয়ামতের দিনে তাদেরকে দোযখের আগুন থেকে রক্ষা করবেন ৷  

  হে আল্লাহর বান্দাগন ! তোমাদের যে কেউ কোনো মুমিনকে ইফতারি দেবে, যেনে রাখ আল্লাহ তাঁকে এর বিনিময়ে একজন দাসকে মুক্ত করার সওয়াব দান করবেন এবং দয়াময় আল্লাহ তাঁর অতীতের সকল গুনাহও ক্ষমা করে দেবেন ৷ 

সাহাবীরা আরজ করে বললেন , অন্যদেরকে ইফতারি করানোর সামর্থ আমাদের সবার নেই৷” তিনি বললেন,রোজাদারদের ইফতারি দেয়ার মাধ্যমে জাহান্নামের আগুন থেকে তোমরা নিজেকে দূরে রাখ,আর সে ইফতারি যদি একটি খুরমার অর্ধেকও বা এমনকি সামান্য পানিও হয়ে থাকে ৷”

তিনি (সা.) আরোও বলেছেন,জান্নাতের মধ্যেও আটটি দরজা আছে। এর মধ্যে একটি দরজার নাম রাইয়ান৷ এ দরজা দিয়ে কেবল রোযাদার ব্যক্তিরাই প্রবেশ করতে পারবে৷ সেদিন এই বলে ডাক দেয়া হবে- রোযাদাররা কোথায় ? তারা যেন এই পথেই বেহেশতে প্রবেশ করে  এভাবেই সকল রোযাদার ভিতরে প্রবেশ করার পর দরজাটি বন্ধ করে দেয়া হবে৷ 

 রাসূল  আল্লাহ  আরো বলেছেন,রোযাদারের মুখের গন্ধ আল্লাহ তায়ালার কাছে মেশক হতেও পবিত্র এবং সুগন্ধিময়। সুতরাং রোযা অবস্থায় কেউ যেন অশ্লীলতায় লিপ্ত না হয় ও ঝগড়া বিবাদ না করে। আমাদের বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.) আরো বলেছেন,যারা এই মাসে অর্থাৎ পবিত্র রমজান মাসে নিজ ব্যবহার এবং আচার আচরণকে সুন্দর করবে তারা সে দিন সহজেই পুলসিরাত পার হয়ে যাবে। যারা এই মাসে ভৃত্য বা অধীনস্তদের কাজ কমিয়ে দেবে মহান আল্লাহ শেষ বিচার দিবসে তার হিসাব সহজ করে দেবেন ৷ যারা এই মাসে অর্থাৎ রমজান মাসে মানুষকে বিরক্ত করা বা কষ্ট দেয়া থেকে বিরত থাকবে,বা অন্যদের দোষ ঢেকে রাখবে,কিয়ামতের দিন মহান আল্লাহ নিজ ক্রোধ থেকে তাদের রক্ষা করবেন ৷ যারা রমজান মাসে এতীমকে আদর যত্ন বা সম্মান করবে কিয়ামতের দিন আল্লাহ তাদেরকে সম্মান করবেন ৷ যারা এই মাসে আত্মীয়-স্বজনের সাথে ভালো ব্যবহার করবে ও তাদের সাথে সম্পর্ক রাখবে কিয়ামতের দিন আল্লাহ তাদেরকে রহমতের ধারায় সিক্ত করবেন,আর যারা এই মাসে আত্মীয় স্বজনের সাথে সম্পর্ক ছিন্ন করবে বা তাদের সাথে খারাপ ব্যবহার করবে আল্লাহ শেষ বিচার দিবসে তাদেরকে নিজ রহমত থেকে বঞ্চিত করবেন ৷”

সম্পাদনা: নাসরিন ইসলাম

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles