শ্রীনগরে রুসদী উচ্চ বিদ্যালয়ের জায়গায় অবৈধভাবে ঘর উত্তোলন!

0
42

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি: মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার তন্তর ইউনিয়নের রুসদী গ্রামে রুসদী উচ্চ বিদ্যালয়ের লিজকৃত জায়গা দখল করে বসত ঘর উত্তোলন করা হচ্ছে। অদৃশ্য শক্তি বলে ওই গ্রামের নুরু শেখের পুত্র সোহেল শেখ (৪০) ও রানা শেখের (৩০) বিরুদ্ধে এ জায়গা দখলের অভিযোগ উঠেছে। এ নিয়ে বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ঐতিহ্যবাহী রুসদী উচ্চ বিদ্যালয়ের পূর্ব পাশে ও লীজকৃত পুকুরটির উত্তর পাড়ের জায়গায় বড় সাইজের ২টি ঘর নির্মাণের কাজ চলছে। জানা যায়, অবৈধভাবে পুকুর পাড়ের ১৯ শতাংশ জমি দখল করে ঘর নির্মাণের কাজ করা হচ্ছে।

মো. সোহেল শেখের কাছে ঘর নির্মাণের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, পুকুর পাড়টি তাদের মালিকানা জায়গা তাই ঘর নির্মাণ করছেন। জায়গার কাগজপত্র আছে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন প্রয়োজনীয় সব কাগজপত্র তার এক আত্মীয়ের কাছে রয়েছে। রুসদী উচ্চ বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সাবেক অভিভাবক সদস্য ও স্থানীয় ইউপি সদস্য আবুল হোসেন মোল্লা বলেন, আমি সোহেলদের ঘর নির্মাণের বিষয়ে বলে এসেছি বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা ছাড়া ঘর উঠানো ঠিক হবে না।

এতে কোন কাজ হয়নি। প্রধান শিক্ষক মো. মিজানুর রহমান শেখ বলেন, ১৯৮৪ সাল থেকে পুকুরটি বিদ্যালয়ের নামে লিজ আনা হয়েছে। এর পর থেকে বিদ্যালয় নিয়মিতভাবে সরকারকে লিজমানি পরিশোধ করে আসছে। দুঃখের বিষয় হঠাৎ পুকুর পাড় দখল করে ঘর নির্মাণ শুরু করেন সোহেল গং। মৌখিকভাবে নিষেধ করা হলেও কাজ বন্ধ করা হয়নি।

বাধ্য হয়েই গত মঙ্গলবার উপজেলা ইউএনও মহোদয় বরাবর লিখিত অভিযোগ করি। এর আগে ২০১৪ সালে তৎকালীন সময়ে বিদ্যালয়ের কো-অপ্ট সদস্য ভুয়া প্রধান শিক্ষক সাজিয়ে জালীয়াতির মাধ্যমে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ১২ শতাংশ জমি দখল করে নেয়। বিদ্যালয়ের এডহক কমিটির সভাপতি আজিজুল হক দুলাল বলেন, অবৈধভাবে ঘর নির্মাণের বিষয়ে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে অভিযোগ করা হয়েছে। নির্মাণাধীন এসব ঘর উচ্ছেদ করার লক্ষ্যে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। এ ব্যাপারে শ্রীনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রণব কুমার ঘোষ জানান, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

আপনার মন্তব্য