সর্বশেষ

39.5 C
Rajshahi
শুক্রবার, মে ২৪, ২০২৪

শ্রীনগরে স্বামীর স্বীকৃতির দাবিতে অসহায় নারীর আকুতি

শ্রীনগর (মুন্সীগঞ্জ) প্রতিনিধি: মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগরে স্বামীর স্বীকৃতির দাবিতে দ্বারে দ্বারে ঘুরে বেড়াচ্ছে আমেনা আক্তার (২২) নামে এক অসহায় এক নারী আকুতি। উপজেলার রাঢ়ীখাল ইউনিয়নের প্রাণীমন্ডলের গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। একই এলাকার মো. রতন শেখের পুত্র রুবেল শেখের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠেছে। এরই মধ্যে আগামী শুক্রবার রুবেল শেখ বিয়ে করে বাড়িতে অন্য স্ত্রী আনার প্রস্তুতি নিচ্ছে। এ নিয়ে আপত্তি জানালে রুবেল শেখ গং আমেনার নানার বাড়িতে এসে হুমকি ধমকি প্রদান করে। এ ঘটনায় সোমবার দুপুরে আমেনা আক্তার শ্রীনগর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী দায়ের করেন। জিডি নং- ১১৩৫।


অভিযোগ উঠেছে ২০২১ সনের জুলাই মাসে আব্দুল লতিফের কন্যা আমেনা আক্তারকে ভালোবেসে স্থানীয় এক ইমামের মাধ্যমে শরাহ কাবিনের মাধ্যমে রুবেল শেখ বিয়ে করে। ওই দিন থেকে রুবেল ও আমেনা দম্পতি একই গ্রামে রুবেলের বোন সম্পার বাড়িতে বসবাস শুরু করে। কিছুদিন পর রুবেল নিজ বাড়িতে ঘর নির্মাণের কথা বলে কৌশলে আমেনাকে তার নানার বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। তার কিছুদিন পরেই রুবেল অন্যত্র বিয়ে করে। এ নিয়ে আমেনা ও রুবেলের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি ঘটে। দ্বিতীয় বিয়ের সত্যতা জানাজানি হলে স্বামীর স¦ীকৃতির জন্য আদালতের দারস্ত হয়।


এলাকায় খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, স্থানীয়ভাবে বিষয়টি সমাধানে বেশ কয়েকবার বৈঠক হয়েছে। কিন্তু প্রভাবশালী রুবেল ও তার পরিবার আমেনাকে মেনে নিতে চাচ্ছেনা। পরে বাধ্য হয়ে আমেনা আক্তার মুন্সীগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৩নং আমলী আদালতে প্রথম মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- ২৪/২০২২। এছাড়া চলতি মাসেও (২০ সেপ্টেম্বর) মুন্সীগঞ্জ বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতে পিটিশন দায়ের করা করে। মামলা নং-২৩৩/২০২২। একটি মামলায় রুবেল ২ মাস জেল খেটে জামিনে এসে আমেনা আক্তার ও তার স্বজনদের বিভিন্নভাবে হুমকি ধমকি প্রদান করছে। একটি সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ২০২১ সালের অক্টোবর মাসে রুবেল গোপনে পার্শ্ববর্তী লৌহজং উপজেলার গাওদিয়া এলাকার মো. লিলেন ঢালীর কন্যা সুরভী আক্তার শাম্মীকে (২২) সাথে কাবিন করে।


আমেনা আক্তার বলেন, আমি রুবেলের প্রতারণার শিকার হচ্ছি। রুবেল সৌদি আরব থেকে দেশে এসে এক ইমামের মাধ্যমে শরাহ কাবিন বিয়ে করেছে। স্বামী স্ত্রী হিসেবে রুবেলের ছোট বোনের বাড়িতে এক সাথে থেকেছি। আমি গর্ভবতী হলে রুবেল সুকৌশলে গর্ভের সন্তান নষ্ট করে। আমি তখন রুবেলের চালাকি বুঝতে পারিনি। আমাকে রেখে গোপনে আরেকটি বিয়ে করে। রুবেল এখন ওই মেয়েকে তার বাড়িতে আনতে চাচ্ছে। আমি রুবেলের স্ত্রীর অধিকার চাই।


এ ব্যাপারে অভিযুক্ত রুবেল শেখের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমেনা আক্তার তার স্ত্রী নন। সে বিয়ের এমন কোন প্রমান দেখাতে পারবে না। আমি তাকে বিয়ে করেছি?

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles