সর্বশেষ

38.4 C
Rajshahi
সোমবার, মে ২০, ২০২৪

৫২ ঘণ্টা পর সেপটিপিন অপসারণ জিদনীর গলা থেকে

টপ নিউজ ডেস্কঃ নাটোরের লালপুর উপজেলার শিশু সোহানা আক্তার জিদনীর (৩) গলায় আটকে যাওয়া সেপটিপিন করা হয়েছে অপসারণ । ঘটনার ৫২ ঘণ্টা পর শুক্রবার (২৬ আগস্ট) রাতে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকরা সক্ষম হন সেপটিপিনটি অপসারণ করতে ।

শনিবার দুপুরে (২৭ আগস্ট) দুপুরে বিষয়টি জিদনীর চাচাতো ভাই হাসান আলী নিশ্চিত করেছেন । জিদনী লালপুর উপজেলার বিলমাড়িয়া ইউনিয়নের বড় বাদকয়া গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে। হাসান আলী বলেন, খাদ্যনালীতে আটকে যাওয়া সেপটিপিন বের করার পর সুস্থ আছে জিদনী এখন । খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত বুধবার সন্ধ্যায় মায়ের হাতে নুডুলস খাওয়ার সময় শিশু জিদনী সেপটিপিন গিলে ফেলে । এসময় সে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে রাজশাহীর বাঘা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয় প্রথমে । পরে তাকে স্থানান্তর করা হয় রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে । সেখানে সেফটিপিন বের করার পর্যাপ্ত ব্যবস্থা না থাকায় জিদনীকে নিয়ে যাওয়া হয় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে । পরে সেখানকার চিকিৎসকরা খাদ্যনালী থেকে অপসারণ করেন সেপটিপিনটি ।

সম্পাদনায়ঃপূরবী রায় ।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles