রাবির ওয়েবসাইট ডাউন, ফলাফল প্রাপ্তিতে বিলম্ব; যা বললেন আইসিটি সেন্টারের পরিচালক

0
161

রাবি প্রতিনিধি: রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) ও স্নাতক শ্রেণির সবগুলো ইউনিটের (‘এ’, ‘বি’, ‘সি’) ফলাফল মঙ্গলবার (২ আগস্ট) বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হয়েছে। কিন্তু বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ডাউন থাকায় ফলাফল পেতে ভোগান্তিতে পড়তে হয়েছে ভর্তিচ্ছুদের। যদিও মধ্যরাত থেকে পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হওয়া শুরু করে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি সংক্রান্ত বিভিন্ন পাবলিক গ্রুপে ভর্তিচ্ছুরা ফলাফল পেতে ভোগান্তির স্বীকার হচ্ছেন বলে জানিয়েছেন। অনেকের অভিযোগ, একই সময়ে জাগাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ও ফলাফল প্রকাশ করেছে; সেখানে এমন বিড়ম্বনায় পড়তে হয় নি।

আবার, কেউ কেউ বলছেন, বিশ্ববিদ্যালয় চাইলেই পিডিএফ আকারে ফলাফল প্রকাশ করতে পারতো। শুধু ভর্তিচ্ছুরাই নয়, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের সবচেয়ে বড় ফেসবুক গ্রুপে, ‘রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারে’ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও বিষয়টি নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, প্রতি বছর ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল প্রকাশের সময় আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট ডাউন হয়ে যায়। অনেকেই আবার বলেছেন, যেহেতু ওয়েবসাইট ডাউন, তাহলে কেন একইদিনে সবগুলো ইউনিটের ফলাফল প্রকাশ করতে হবে? অন্যদিকে, কমেন্ট সেকশনে বেশিরভাগ শিক্ষার্থী ফলাফল পিডিএফ আকারে প্রকাশ করার জন্য কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানান।

য়েবসাইট ডাউন প্রসঙ্গে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেন্টারের পরিচালক অধ্যাপক ড. বাবুল ইসলাম টপ নিউজ ২৪ ডটকমকে বলেন, “প্রথম দিন হওয়ায় ওয়েবসাইটে হিট বেশি ছিল … বিষয়টি আমাদের নজরে এসেছে।” পিডিএফ আকারে ফলাফল প্রকাশ করা যেত কিনা, এমন প্রশ্নের উত্তরে অধ্যাপক ড. বাবুল ইসলাম বলেন, “আমাদের নিয়মটি হচ্ছে, যতজন পরীক্ষার্থী, আমরা সবার রেজাল্ট প্রস্তুত করি … অনুপস্থিত থাকুক বা অনুত্তীর্ণ হোক। যদি শুধু যারা পাশ করেছে তাদের তালিকা দেওয়া হতো তাহলে সংখ্যাটা অনেক কম হতো … জাহাঙ্গীরনগর শুধু যারা উত্তীর্ণ হয়েছে (আসনের দশগুণ) তাদের লিস্ট দিচ্ছে হয়তো। আমরা তো সেভাবে ফলাফল দিচ্ছি না।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট উন্নয়নে বিশেষ উদ্যোগ নেয়া হয়েছে উল্লেখ করে, আইসিটি সেন্টারের পরিচালক বলেন, “আমরা ইতোমধ্যেই উদ্যোগ নিয়েছি। উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন দুটো সার্ভার আমাদের আইসিটি সেন্টারে অলরেডি চলে এসেছে। শুধু এডমিশন টেস্টের জন্যই আমরা এগুলো ব্যবহার করবো। আগামী বছর থেকে ওয়েবসাইট সংক্রান্ত সমস্যা আশা করি আর থাকবে না।” প্রসঙ্গত, এ বছর রাবিতে ৪ হাজার ২০ টি আসনের (কোটা ছাড়া) বিপরীতে, তিনটি ইউনিটের জন্য চূড়ান্ত আবেদন প্রক্রিয়া শেষে ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের সুযোগ পেয়েছিলেন ১ লাখ ৭৮ হাজার ২৬৮ জন ভর্তিচ্ছু। ২৫-২৭ জুলাই তিনটি ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা MCQ পদ্ধতিতে অনুষ্ঠিত হয়। ভর্তি সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইট: https://admission.ru.ac.bd/undergraduate/ থেকে দেখা যাবে।

আপনার মন্তব্য