সর্বশেষ

31.1 C
Rajshahi
বুধবার, জুন ২৬, ২০২৪

শ্রীনগর-শেখরনগর খালের ষোলঘরে অবৈধ ড্রেজার বাণিজ্য,দুর্ঘটনার শঙ্কা

শ্রীনগর (মুন্সীগ্ঞ্জ) প্রতিনিধি: রাজধানী ঢাকার শ্রীনগর-শেখরনগর খালের শ্রীনগর উপজেলার ষোলঘর ইউনিয়নের গোয়ালপাড়া সেতুর ঠিক সামনে ছাড়পত্রবিহীন ড্রেজার রমরমে বাণিজ্যে নৌ-যান চলাচল ব্যাহত হচ্ছে প্রতিনিয়ত। যত্রতত্রভাবেই খালে বাল্কহেড রেখে ড্রেজারে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এত গুরুত্বপূর্ণ খালটিতে যাত্রীবাহী ও পণ্যবাহীসহ স্থানীয়দের নৌকা চলাচলে ঝুঁকিপূর্ণ ভাবেই চলাচল করেছে এতে  দুর্ঘটনার শঙ্কা করছেন এলাকাবাসী। অপরদিকে সেতুর নিচ দিয়ে অবাদে বালুবাহী বড় বড় বাল্কহেড আসা যাওয়ার ফলে সেতুটি হুমকির মুখে পড়েছে। ড্রেজার সিন্ডিকেটের অন্যতম সদস্য হলেন বাবু ও মো.কালামের বিরুদ্ধে গোয়ালপাড়া এলাকায় ব্যস্ততম খালে অবৈধভাবে ড্রেজারের ভাসমান সাব-স্টেশন স্থানের অভিযোগ উঠে।

সেখানে সরেজমিনে দেখা যায়, ষোলঘর ইউনিয়নের গোয়ালপাড়ায় শ্রীনগরের-শেখরনগর খালে অবৈধভাবে স্থাপন করা হয়েছে ড্রেজারটি। খালটিতে যত্রতত্রভাবে বাল্কহেড ণোঙ্গর করে ঘন্টার পর ঘন্টা ড্রেজারে লাইণের মাধ্যমে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। এতে খালে নৌ-যান চলাচলে সমস্যা  সৃষ্টি হচ্ছে। এ অবস্থায় ঘটতে পারে বড় ধরণের দুর্ঘটনা। এছাড়া এসব বালুবাহী বাল্কহেডের ধাক্কায় সেতুর অবকাঠামো মারাত্ত্বক ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

স্থানীয়দের সাথে কথা বলে জানাযায়, গোয়ালপাড়ায় খালের ওপর ২০১৪-১৫ সালের অর্থ বছরে নির্মিত হয় সেতুটি। বড় বড় বাল্কহেড চলাচলের ফলে সেতুর পিলারে ধাক্কা লাগছে। প্রভাবশালী ড্রেজার সিন্ডিকেটের ভয়ে সাধারণ মানুষ  মুখ খুলতে সাহস পাচ্ছেনা। অপর একটি সূত্র জানায়, সরকারের নিয়মনীতির কোনো  তোয়াক্কা না করে ড্রেজার সিন্ডিকেটটি বিভিন্ন ফসলী জমি, খাল ও জলাশয় ভরাট বাণিজ্য করে যাচ্ছে।

প্রভাব খাটিয়ে সাধারণ মানুষের বসতবাড়ি ও এলাকার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ব্যবহার যত্রতত্রভাবে ড্রেজারের দীর্ঘ পাইপ লাইনের সংযোগ দিয়েছে। প্রভাবশালী ড্রেজার সিন্ডিকেট সদস্যদের ভয়ে ভুক্তভোগীরা মুখ খুলতেও সাহস পাচ্ছেনা। স্থানীয় প্রশাসন মাঝে মধ্যে এসব ড্রেজার উচ্ছেদ করলেও ড্রেজার সিন্ডিকেটরা নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ফের ড্রেজার চালু করছে।

ড্রেজার ব্যবসায়ী বাবু ও মো.কালাম কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তারা জানান, সবাই করছে আমরা করছি। আমাদের কাজ শেষ হয়ে গেলে খাল থেকে ড্রেজার নিয়ে যাবো।

এ ব্যাপারে ষোলঘর ইউনিয়ন ভূমি উপ-সহকারী কর্মকর্তা মোঃ দিদার হোসেন শাহিন টপ নিউজকে জানান, খালে ড্রেজার থাকার বিষয়ে আমার জানাছিল না। এখনই খোঁজ খবর নিয়ে দেখছি।

Related Articles

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

Latest Articles